এসইও শিখুন পর্ব ১ ( সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে )

SEO Learning Part One

এসইও শিখুন পর্ব ১ ( অধ্যায়-১ ) সার্চ ইঞ্জিন একটি টুল। যা ওয়েবসাইটের কন্টেন্ট গুলোকে পজিশন প্রদান করে এবং মানুষ কোন কিছু সার্চ করলে তার রেজাল্টে ফলাফল প্রকাশ করে।

সার্চ ইঞ্জিন দুই ভাবে কাজ করে থাকে। প্রথম ইনডেক্স করে বিভিন্ন ধরনের ওয়েবসাইট বা ওয়েব কন্টেন্ট দ্বিতীয় এলগোরিদাম। এলগোরিদামের মাধ্যমে সার্চ ইঞ্জিন একটি ওয়েব কন্টেন্টকে Rank প্রদান করে থাকে।

সার্চ ইঞ্জিন কি? সার্চ ইঞ্জিন একধরনের ডিজিটাল লাইব্রেরীরি যেখানে লক্ষ লক্ষ তথ্য সংরক্ষিত অবস্থায় থাকে। যেখানে থেকে সার্চ করে নিদিষ্ট অর্থ বা বিষয় বের করা যায়।

সার্চ ইঞ্জিনে আমরা যখন কোন কিছু সার্চ করি তখন ইঞ্জিন এলগোরিদাম একটি নিদিষ্ট প্রোসেসের মাধ্যমে আমাদের কাছে সব থেকে রিলেটেড রেজাল্টি প্রকাশ করে।

সার্চ ইঞ্জিনের লক্ষ কি?

প্রতিটি সার্চ ইঞ্জিনের লক্ষ হল তাদের গ্রাহকের সার্চ কোয়ারি অনুসারে সব থেকে রিলেটেড রেজাল্টি প্রদান করা। কারন তারা যেন তাদের মার্কেট শেয়ারটি ধরে রাখতে পারে।

সার্চ ইঞ্জিনের উদ্দশ্য

ওয়া যাক, আপনি কোন সার্চ ইঞ্জিনে গিয়ে সার্চ করলেন কিভাবে এসইও শেখা যায়, এখন গুগল ট্রেই করবে আপনার প্রশ্ন অনুযায়ি সব থেকে ভালো উত্তরটি খুঁজে বের করার। এখন যে সার্চ ইঞ্জিন সব থেকে ভালো রেজাল্টি আপনার জন্য প্রদান করবে আপনি সেই সার্চ ইঞ্জিনকে বিশ্বাস করবেন এটাই স্বাভাবিক।

সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে অর্থ আয় করে

সার্চ ইঞ্জিন বিজ্ঞাপন প্রদান করার মাধ্যমে অর্থ আয় করে থাকে। কোন সার্চ ইঞ্জিনে যখন সার্চ করা হয় তখন দুই ধরনের রেজাল্ট প্রদর্শন হয়ে থাকে। এক পেইড রেজাল্ট দুই ফ্রি রেজাল্ট।

How search engine make money

পেইড রেজাল্ট: আপনি অনলাইনে নতুন একটি শপ ওপেন করলেন। আমার অনলাইন শপ থেকে বিক্রয় করা যাবে যদি মানুষ আপনার শপটি সার্চ রেজাল্টে খুঁজে পায়। যেহেতু আপনার শপটি নতুন সুতরাং মানুষ আপনাকে খুব সহজে খুঁজে পাবে না। কারন আপনার মত হাজার হাজার শপ হোল্ডার আছে যারা অনেক দিন যবত অনলাইনে ব্যবসা করে আসতেছে।

এখন আপনি যদি চান যে আজ শপ ওপেন করলাম কালকে থেকে আমার বিক্রয় শুরু হোক তাহলে এর জন্য আপনাকে সার্চ রেজাল্টের প্রথমে আসতে হবে। সার্চ রেজাল্টের প্রথমে আসার জন্য আপনি গুগল বা অন্য কোন সার্চ ইঞ্জিনকে অর্থ প্রদান করবেন।

আপনি অর্থ প্রদান বা বিজ্ঞাপন দেওয়ার মাধ্যমে আপনার ওয়েবসাইটকে সার্চ রেজাল্টের প্রথমে নিয়ে আসতে পারবেন।

ফ্রি রেজাল্ট: আপনার ওয়েবসাইটি ভালো ভাবে সার্চ ইঞ্জিনের জন্য অপটিমাইজ করতে পারলে একটি সময় পর। আপনার ওয়েবসাইটি সার্চ ইঞ্জিনের রেজাল্টের পেজের প্রথমে দিকে চলে আসবে। এক্ষেত্রে আপনাকে সময় এবং আপনার ওয়েবসাইটের মান দুইটি বিষয় ঠিক রাখতে হবে।

ফ্রি রেজাল্ট নিয়ে আসতে সময় লাগে কিন্তু ফ্রি রেজাল্ট দিয়ে অনেক দিন যাবত ব্যবসা করা যায়। যদিও গুগল রেজাল্ট পরির্বতন করে থাকে। এই রেজাল্ট পরির্বতনের বিষয়টি অনেক গুলো বিষয়ের উপর নির্ভর করে থাকে। এবং ফ্রি রেজাল্টের জন্য আপনাকে এসইও কাজ করতে হবে।

অবশ্য পেইড রেজাল্টের ক্ষেত্রে একটি বিষয় জড়িত আছে। তাহল আপনি সার্চ ইঞ্জিনের প্রথম পেজে আসার পর কেউ আপনার ওয়েবসাইটের বিজ্ঞাপনে ক্লিক করলে গুগল আপনার কাছ থেকে অর্থ নিবে। এই ধরনের এড গুলোকে সংক্ষেপে PPC (Pay-Per-Click) এড বলা হয়ে থাকে।

সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে কাজ করে, জানা জরুরি কেন?

আপনার অনলাইন ব্যবসার জন্য এটা জানা খুবেই জরুরি যে সার্চ ইঞ্জিন আপনার কন্টেন্ট কিভাবে খুঁজে পাবে, কিভাবে ইনডেক্স করে, এবং কিভাবে কন্টেন্টকে র‌্যাঙ্ক প্রদান করে।

আপনার ওয়েবসাইট বা কন্টেন্ট একটি ভালো মানের কিওয়ার্ডের জন্য র‌্যাঙ্ক করলে অধিক সার্চ ক্লিক পাবে আপনার ওয়েবসাইট।

আপনার ওয়েবসাইটে যত বেশি ভিজিটর আসবে তত বেশি আপনার ব্যবসা হবে। কারন অনলাইন ব্যবসা সম্পূর্ণ ভাবে ওয়েব ভিজিটরের উপরের নির্ভর করে।

আপনার ওয়েবসাইট গুগল সার্চ রেজাল্টের পজিশন ওয়ানে থাকলে সার্চ কোয়ারির ৩১.৭৩% সার্চ ক্লিক পাবেন। দুই পজিশন ২৪.৭১% ক্লিক পায়, তৃতীয় পজিশনের জন্য ১৮.১৬%, চতুর্থ পজিশনের জন্য ১৩.৬০%, ৫ম পজিশনের জন্য ৯.৫১%, ৬ষ্ট পজিশনের জন্য পাবেন ৬.২৩% পজিশন, ৭ম স্থানের জন্য ৪.১৫%, ৮ম স্থানের জন্য ৩.১২%, ৯ম স্থানের জন্য ২.৯৭% এবং ১০ম স্থানের জন্য ৩.০৯% ক্লিক পায় ওয়েবসাইট গুলো।

গুগল পেজের পজিশন কিভাবে করে

জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন এবং সার্চ ইঞ্জিন কিভাবে পোষ্ট বা ওয়েবসাইট ইনডেক্স করে বিস্তারিত?

যদি আপনাকে প্রশ্ন করা হয়। পৃথিবীর সব থেকে জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন কোনটি তাহলে আপনিও বলতে পারবেন গুগল। হ্যাঁ গুগল হল পৃথিবীর সব থেকে জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন।

সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটের 92.4% গুগলের দখলে। বাকি 2.5% Bing, 1.5% Yahoo, 1.3% Baidu, DuckDuckGo 0.6%, Yandex 0.5% other 1.2%

প্রতিটি এসইও ওয়ার্কার এবং ওয়েবসাইট ওনার গুগলকে টার্গেট করে এসইও করে থাকে। কারন গুগল থেকে সব থেকে বেশি ভিজিটর পাওয়া সম্ভব।

গুগল কিভাবে একটি ওয়েবসাইট বা পেজকে ইনডেক্স করে নিচের ছবিটি দেখলে বুঝতে পারবেন।

How search engines build their index

Understand the SEO basics of Google

মোট চারটি স্টেপে গুগল তার ইনডেক্সের কাজটি করে থাকে

  1. URLs
  2. Crawling
  3. Processing And Rendering
  4. Indexing

Step 1. URLs ( ইউআরএল )

গুগল ক্রোলের শুরু হয় ইউআরএল থেকে। গুগল ক্রোলার আপনার ওয়েবসাইটের পোষ্টের ইউআরএল বিভিন্ন ভাবে খুঁজে পেতে পারে। সব থেকে কমন যে উপায় গুলো হল ইউআরএল খুঁজে পাওয়ার তা নিচে তুলে ধরা হল।

ব্যাকলিংক

আপনার পোষ্টোর লিংক বিভিন্ন ওয়েবসাইটে খুঁজে পাওয়া গেলে গুগল বুঝতে পারে। এবং আপনার ইউআরএল কে ইনডেক্স করে থাকে।

তাই আপনার পোষ্টের লিংক যত বেশি ওয়েবসাইটে শেয়ার করা হবে তত তাড়াতাড়ি আপনার পোষ্ট ইনডেক্স হবে। যে কোন পোষ্ট ওয়েবসাইটে পাবলিশ করার পর সোস্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম গুলোতে শেয়ার করলে গুগল যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আপনার পোষ্টটি ইনডেক্স করবে।

সাইট ম্যাপ

আপনার ওয়েবসাইটের সাইট ম্যাপ থাকলে গুগল আপনার পোস্টের ইউআরএল খুঁজে পাবে তাড়াতাড়ি। আপনার ওয়েবসাইটের সাইট ম্যাপ ক্রিয়েট করার জন্য বিভিন্ন ধরনের টুল আছে যা ব্যহার করে আপনি ফ্রি সাইট ম্যাপ ক্রিয়েট করতে পারবেন।

আপনি ব্লগার থেকে ব্লগ তৈরি করলে Google Search Console ব্যবহার করে সাইট ম্যাপ সাবমিট করতে পারবেন। সাইট ম্যাপ কিভাবে সাবমিট করবেন এই নিয়ে পরর্বতীতে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে।

অটো সাইট ম্যাম ক্রিয়েক করার ওয়েবসাইট

xmlsitemap

mysitemap

Sitemap Buil and Submit

URL Submission

আপনার গুগল সার্চ Console Account থাকলে সরাসরি আপনার ওয়েবসাইটের পোষ্ট গুগল সার্চ Console এর মাধ্যমে গুগলে সাবমিট করতে পারবেন।

URL Inspection করার পর যদি দেখেন যে আপনার ইউআরএলটি গুগলে ইনডেক্স হয়নি তাহলে ইউআরএলটি গুগলে ইনডেক্স করার জন্য লাইফ টেষ্ট করার পর রিকুয়েস্ট করতে পারবেন।

URL Submission

ইউআরএল কি?

URL (Uniform Resource Locator) ওয়েবসাইটে পোষ্ট করার সময় সেই পোষ্টির একটি ঠিকানা তৈরি হয়। যা হা সংক্ষেপে ইউআরএল নামে পরিচিত। যেমন এই পোষ্টির ইউআরএল টি নিচে দেখুন।

https://techbanglablog.com/seo/seo-part-one/how-search-engines-work/

কিভাবে এসইও ফ্রেন্ডলি ইউআরএল তৈরি করতে হয় এই বিষয় গুলো নিয়ে পরর্বতীতে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে।

Step 2. ক্রোলিং

ক্রোলার হল এক ধরনের কম্পিউটার রোবট যা আপনার ওয়েবসাইট গুলো খুঁজে বের করে এবং ডাউনলোড করে। তবে গুগল রোবট সব সময় একই ভাবে আপনার ওয়েবসাইট ক্রোল করবে তা কিন্তু নয়।

গুগল রোবট যে ভাবে পৃষ্ট গুলো ক্রোল করে।

  • The Page Rank of the URL
  • How Often the URL Changes
  • Whether or not it’s new

একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল সার্চ ইঞ্জিন গুলো আপনার ওয়েবসাইট পোষ্ট গুলো ক্রোল করার জন্য একটি সময় এবং সূচি তৈরি করে থাকে। তবে আপনার ওয়েবসাইট যদি বড় হয় তাহলে ক্রোলার পোষ্ট গুলো ক্রোল করার জন্য সময় নিয়ে থাকে।

Setp 3. প্রোসেসিং ( প্রক্রিয়াকরন )

গুগল বোঝারে জন্য পেজটির প্রোসেসিং করে যে আপনার লেখার আসল পয়েন্টটি কি। এবং গুগল কিভাবে একটি পোষ্টকে প্রোসেসিং করে এটা সঠিক ভাবে কেউ বলতে পারবে না। তবে উপরের চিত্রটি দেখে কিছু টা অনুমান করা যায় মাত্র।

একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল শুধু মাত্র ভালোমানের কন্টেন্ট গুলো খুব তাড়াতাড়ি ইনডেক্সিং হয়ে থাকে। গুগল একটি কোড রান করে থাকে আপনার পোষ্টি সম্পর্কে বোঝার জন্য।

একজন রিডার আপনার পোষ্টটি কিভাবে পড়তে পারবে তা বোঝার জন্য গুগল কত গুলো কোড রান করে আপনার পোষ্টে। এবং পোষ্টি Rendering করার আগে এবং পরে কিছু কাজ করে থাকে গুগল।

Setp 4. ইনডেক্সিং

পোষ্ট ইনডেক্সিং হল সার্চ ইঞ্জিন তার নিজের সার্ভারে আপনার পোষ্টির লিপি বদ্ধ করা। যদি আপনার পোষ্টটি সার্চ ইঞ্জিনে লিপি বদ্ধ না হয় তাহলে ভিজিটর আপনার পোষ্টটি খুঁজে পাবে না।

একটা উদাহরন দেওয়া যাক, আপনি কোন ইউনির্ভারসিটির নিদিষ্ট ইউনিটে ভর্তি হলেন। এখন কেউ যদি সেই ইউনির্ভারসিটি গিয়ে আপনার বিভাবে খোঁজ করে সঠিক ভাবে তাহলে আপনাকে খুঁজে পাওয়া সম্ভব।

ঠিক একই ভাবে গুগলে কোন পোষ্ট একবার ইনডেক্স হলে আপনার পোষ্টটি গুগলে খুঁজে পাওয়া সম্ভব। আপনার পোষ্টটি ইনডেক্স না হলে খুঁজে পাওয়া সম্ভব নয়।

একটা বিষয় হল যখন আমরা সার্চ ইঞ্জিনে কোন কিছু সার্চ করি তখন কিন্তু সেই নিদিষ্ট ওয়েবসাইট টি খোঁজ করি না। আমার খোঁজ করি কোন তথ্য বা উপাত্তের।

সুতরাং আপনার ওয়েবসাইটের পোষ্টটি যদি ইনডেক্স না হয় তাহলে সেটা সার্চ ইঞ্জিনের রেজাল্টে খুঁজে পাওয়া যাবে না। তাই পোষ্ট সার্চ ইঞ্জিনে ইনডেক্স হওয়াটা জরুরি।

Featured