এসইও বিষয় প্রাথমিক ধারনা

SEO Learning Chapter 2

আমি ব্যক্তিগত ভাবে মনে করি এসইও শেখার জন্য নিজের ওয়েবসাইট থাকাটা জরুরি। কারন এক মাত্র বাস্তাব প্রাকটিস করার মাধ্যমে এসইও শিখা সম্ভব। আবার অনেক মানুষ মনে করে এসইও বিষয়টা খুবেই জটিল। কিন্তু আমি মনে করি এসইও বিষয় কখনো জটিল নয়।

আপনি সঠিক ভাবে প্রতিটি বিষয় প্রথম থেকে ফলো করে কাজ করলে এসইও একটি সময় ভালো রেজাল্ট প্রদান করে থাকে। যা হোক আজকে আমি আলোচনা করব। কিভাবে আপনি এসইও শিখতে পারেন। এবং প্রথম অবস্থায় আপনার কোন কোন বিষয় গুলো নজর রাখা দরকার।

৫৭.৮% সার্চ ট্রাফিক আসে গুগল থেকে। যেহেতু প্রতিটি সার্চ ইজ্ঞিনের এলগোরিদম ভিন্ন ভিন্ন সেহেতু আমার এখানে যা কিছু শিখব গুগল সার্চ ইজ্ঞিনকে লক্ষ রেখে।

আপনি যদি মনে করেন এসইও বিষয় বেসিক ধারনা একটি ওয়েবসাইট র‌্যাঙ্ক করানোর জন্য যথেষ্ট নয়। একই সাথে এটাও সঠিক খুব কম সংখ্যক মানুষের এসইও বিষয় বেসিক ধারনা আছে। আপনি বেসিক বিষয় জেনে থাকলে আপনার ওয়েবসাইট র‌্যাঙ্ক করাটা সহজ হবে।

এই লেখার মধ্যে আমরা প্রথমে এসইও বিষয় বেসিক ধারনা গুলো নিব। সাথে সাথে এই বিষয়টা আলোচনা করা হবে কেন এসইও একটি ওয়েবসাইটের জন্য গুরুত্ব বহন করে।

এসইও গুরুত্ব

আমি কিছু ক্ষন আগেই বললাম যে একটি ওয়েবসাইটের বেশির ভাগ ভিজিটর আসে গুগল সার্চ ইজ্ঞিন থেকে। বাকি ট্রাফিক গুলো আসে ফেসবুক, ইউটিউব, ইয়াগু, এবং বিং থেকে।

ফেসবুক থেকে আসে ৫.২০%

ইয়াগু থেকে ট্রাফিক আসে ৪.৩০%

বিং থেকে ওয়েবসাইটের ট্রাফিক আসে ৩.৭০%

আমি যদি আমাদের লেখা সার্চ ইজ্ঞিন কিভাবে একটি ওয়েবসাইটকে Rank করে পড়ে আসতে পারেন। এসইও গুরুত্ব এই কারনে যে এসইও আপনার ওয়েবসাইটকে গুগলের ১ থেকে ১০ পজিশনে নেওয়ার জন্য সিগনাল প্রদান করে।

আপনার একটি ই-কমার্স ওয়েবসাইট আছে। আপনি চাচ্ছেন আপনার ওয়েবসাইটে লক্ষ লক্ষ কাস্টমার আসুক এবং পণ্য অর্ডার করুক। এটা তখনই সম্ভব যখন হাজার হাজার ভিজিটর আপনার ওয়েবসাইটে আসবে।

আপনার নতুন ই-কমার্স ওয়েবসাইট সুতরাং আপনি চাইলেও হাজার হাজার সার্চ ট্রাফিক Google থেকে পাবেন না। এর জন্য আপনাকে এসইও করতে হবে। একমাত্র একটি পজিটিভ এসইও প্যাকেজ পারবে আপনার ওয়েবসাইটকে সফলতার দাঁড় প্রান্তে নিয়ে যেতে।

তবে এর সাথে এই বিষয়টি মনে রাখতে হবে। এসইও কোন জাদুর কাঠি নয় যে আজ শুরু করলে কালকে থেকে সফলতা দেখতে পাবেন। এসইও একটি প্রোসেস যার মধ্য দিয়ে আপনাকে যেতে হবে। এবং একটি সময় আপনি সফলতা দেখতে পাবেন।

অনলাইনে ব্যবসা করেন বা অন্য কোন কিছু তার জন্য ওয়েবসাইটে ভিজিটর আসাটা জরুরি। আর এই ভিজিটর নিয়ে আসার প্রোসেসটি তৈরি হয় এসইও করার মধ্য দিয়ে।

ওয়েবসাইট ট্রাফিক

একটি বিষয় লক্ষ করে দেখা গেছে যে গুগলের ১ থেকে ১০ পজিশনের ওয়েভসাইট গুলো শুধু মাত্র ফ্রি টাফিক পেয়ে থাকে। গুগলের সার্চ ট্রাফিক নির্ভর করে আপনার ওয়েবসাইটের পজিশনের উপর।

Google Position and traffic percentage

আপনার পোষ্টটি গুগলের নাম্বার ওয়ান পজিশনে থাকলে ৩১.৭৩% ভিজিটর পাবে গুগলের সার্চ রেজাল্ট থেকে। এই একই সংখ্যাক ভিজিটর গুগলের পেইড রেজাল্ট থেকে নিতে গেলে হাজার হাজার ডালার খরচ করতে হবে।

অরগানিক ভিজিটর আপনি নিয়মিত পাবেন কিন্তু পেইড ভিজিটর পেতে গেলে আপনাকে পেমেন্ট করতে হবে। আপনি যত ক্ষন পেমেন্ট করবেন তত ক্ষন ভিজিটর পাবেন। পেমেন্ট দেওয়া বন্ধ করে দিলে আর ভিজিটর পাবেন না। পেইড রেজাল্টের ছবিটি নিচে দেখুন।

যে সকল ওয়েবসাইটের শুরুতে AD লেখা থাকবে সেই সকল গুগলের পেইড রেজাল্ট।

Google paid result

উপরের যে রেজাল্ট গুলো দেখতে পাচ্ছেন। এই রেজাল্ট গুলো ততক্ষন থাকবে যত ক্ষন পর্যন্ত এই ওয়েবসাইটি গুগলকে পেমেন্ট করবে।

Google Regular Traffic VS Paid Traffic

Featured