কম্পিউটারে গতি বৃদ্ধি করার টিপস (কম্পিউটার টিপস)

কম্পিউটার গতি বৃদ্ধি করার কিছু টিপস টেক বাংলা ব্লগ সাইটের মাধ্যমে আপনাদের সাথে শেয়ার করছি। কম্পিউটার স্লো হওয়ার কিছু কারণ থাকে। অনেক কম্পিউটার ব্যবহারকারীরা প্রথমেই যে, সমস্যার কথা বলে তা হচ্ছে কম্পিউটার স্লো হয়ে যাচ্ছে। কম্পিউটার স্লো হওয়ার জন্য দ্বায়ী একমাত্র ব্যবহারকারী নিজেই। কম্পিউটার শুধু ব্যবহার করলেই হবে না কিছু টেকনিক্যাল পদ্ধতি মাথায় রাখতে হবে। আর এই টেকনিক্যাল পদ্ধতি যদি মাথায় রাখা যায় তাহলে আসাকরি আপনার প্রিয় কম্পিউটারটি আর স্লো হবে না। তাহলে প্রিয় বন্ধুগণ চলুন জেনে নেওয়া যাক কিভাবে কম্পিউটারকে কিভাবে গতি বৃদ্ধি করা যায়।

  • কম্পিউটারকে প্রথমেই এমন জায়গায় রাখুন যেখানে ধুলা-ময়লা কোন প্রকার প্রবেশ করতে না পারে। ধুলা-ময়লা কম্পিউটারকে স্লো করা ছাড়াও অনেক ক্ষতি করে। ধুলা-ময়লা কম্পিউটারে র‌্যামের মধ্যে প্রবেশ করে, কুলিং ফ্যানের মাধ্যে প্রবেশ করে কম্পিউটারকে একদম স্লো করে দেয়। তাই প্রতিনিয়োত কম্পিউটারকে ধুলা-ময়লা পরিষ্কার করে রাখুন আসাকরি কম্পিউটার স্লো থেকে মুক্তি পাবেন।
  • কম্পিউটারকে স্লো করার সব থেকে বড় কারণ হচ্ছে, ভাইরাসে আক্রমণ। কম্পিউটারকে যদি ভাইরাস আক্রমন করে তাহলে কম্পিউটার অবশ্যই স্লো হবে। ভাইরাস এর কারণে কম্পিউটারের অপারেটিং সিষ্টেম স্লো হয়ে যায়। পাশাপাশি কম্পিউটারের ইনষ্টল করা সফটওয়্যারগুলোও নষ্ট হয়ে যায় এবং কাজ করাও স্লো হয়ে যায়। তাই কম্পিউটারে অবশ্যই এন্টিভাইরাস ইনষ্টল করে রাখুন এবং প্রতিদিন স্ক্যান করুন। যাতে করে কম্পিউটার স্লো হয়ে না যায়।
  • পিসিতে কোন প্রকার ডেমো সফটওয়্যার ইনষ্টল করবেন না। ডেমো সফটওয়্যারগুলো বেশিরভাগ ৩০দিন প্রযন্ত ব্যবহার করা যায়। ৩০দিন পর থেকেই সফটওয়্যার কাজ করা বন্ধ করে দেয় এবং কম্পিউটার স্লো কাজ করে। তাই সব সময় চেষ্টা করবেন পেইড সফটওয়্যার ব্যবহার করতে।
  • একই পিসিতে দুইটা এন্টিভাইরাস ইনষ্টল করবেন না। অনেক ব্যবহারকারীরাই এই ভূল করে থাকে। যারাই এই ভূলগুলো করে তাদেরই পিসি স্লো হয়ে যায়। তাই আপনার পিসিতে যদি দুইটা এন্টিভাইরাস ইনষ্টল করা থাকে তাহলে একটি রিমুভ করে দিন।
  • পিসিতে কোন ভাইরাসযুক্ত পেনড্রাইভ প্রবেশ করাবেন না। আর যদি পেনড্রাইভ প্রবেশ করানও লাগেই তাহলে পেনড্রাইভ প্রবেশ করার পর সরাসরি পেনড্রাইভে প্রবেশ করবেন না। আগে পেনড্রাইভটি স্ক্যান করে নিয়ে ফাইল ট্র্যান্সফার করুন।
  • বছরে দুই বা তিনবার উইন্ডোজ নতুন করে সেটাপ করুন। উইন্ডোজের বয়স যত হবে ততই কাজ করার ক্ষমতা কমতে থাকে। ফলে কম্পিউটারটি আস্তে আস্তে স্লো হয়ে যায়।
  • পিসিতে কাজ করলে অনেক টেম ফাইল সি ড্রাইভে জমা হতে থাকে। ফলে কম্পিউটার স্লো হয়ে যায়। তাই কম্পিউটার চালু করার সময় একবার এবং বন্ধ করার সময় একবার টেম ফাইল রিমুভ করুন। টেম ফাইল রিমুভ করার জন্য আপনাকে প্রথমে Ran গিয়ে %Temp% লিখে এন্টার প্রেস করুন দেখবেন অনেক ফাইল জমা হয়ে আছে সেগুলো ডিলেট করে দিন। আসাকরি অনেক উপকার পাবেন।
  • পিসি ব্যবহার করার জন্য অবশ্যই ইউপিএস ব্যবহার করুন। ইউপিএস ছাড়া কম্পিউটার ব্যবহার করলে বিদ্যুৎ চলে গেলে হঠাৎ পিসি বন্ধ হয়ে যাবে ফলে কম্পিউটারে অনেক ক্ষতি হতে পারে। যদি ইউপিএস থাকে তাহলে বিদ্যুৎ চলে গেলেও কম্পিউটার প্রপারলি শার্টডাউন দিতে পারবেন। তাতে কম্পিউার স্লো হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা অনেক কমে যাবে।
  • পিসেতে সি-ক্লিনার সফটওয়্যার ব্যবহার করুন। সি-ক্লিনার সফটওয়্যার দিয়ে প্রতিদিন নিয়োমিত করে ক্লিন করুন এতে করে পিসি অনেক গতিতে কাজ করবে।

প্রিয় টেক বাংলা ব্লগ এর নিয়োমিত ভিজিটরগণ আমার এই পোষ্টটি যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে নিয়োমিত ভিজিট করুন এই সাইটটিতে। আর যদি আমার পোষ্টারটি আপনাদের কোন উপকারে আসে তাহলে ঘুরে আসতে পারেন ব্লগ একাত্তর সাইটে। সবাই ভালো থাকুন, সুস্থ্য থাকুন এই কামনায় আমি আমার পোষ্টটি শেষ শেষ করছি।

Add comment